Recent Posts

Pages: [1] 2 3 ... 10
1

দেশের বাজারে ভিভোর ফ্ল্যাগশিপ ভি ২০ স্মার্টফোন


দেশের বাজারে মিলছে ক্যামেরাসহ বিভিন্ন প্রযুক্তির আধুনিক সংষ্করণ নিয়ে করা স্মার্টফোন ভিভো ভি-২০। গত ৯ সেপ্টেম্বর নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনটি বাজারে আনার ঘোষণা দেয় স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভিভো। এর প্রি বুকিং চলেছে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত। গ্রাহকরা এখন দেশের বিভিন্ন আউটলেটে ও শো রুম থেকে ফোনটি কিনতে পারবেন।

ভিভো ভি২০ স্মার্টফোনটিতে প্রথমবারের মতো আই অটোফোকাস প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে , যার মাধ্যমে ফোকাস ঠিক রেখে স্পষ্ট ছবি তুলার সুবিধা দিবে এই ফ্ল্যাগশিপ ফোন টি। এছাড়াও ভিভো ভি২০তে এজি গ্লাস, ডুয়েল ভিডিও ক্যামেরাসহ দারুণ কিছু প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে। স্মার্টফোনটিতে ৪৪ এমপি সেলফি ক্যামেরা যুক্ত করা হয়েছে- যা এ যাবৎকালের সবচেয়ে বড় সেলফি ক্যামেরা।

ফোনটির বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ৩২ হাজার ৯৯০ টাকা, পাওয়া যাচ্ছে সানসেট মেলোডি ও মিডনাইট জ্যাজ রঙে।

৪০০০ এমএইচ ব্যাটারি যুক্ত ভিভো ভি২০ এর পেছনে তিনটি ক্যামেরা যুক্ত করা হয়েছে। ক্যামেরাগুলো যথাক্রমে ৬৪, ৮ ও ২ এমপির। এবং সামনের ক্যামেরাটি ৪৪ এমপির অটোফোকাস যুক্ত। এছাড়া সুপার ওয়াইড অ্যাঙ্গেল নাইট মোড ও ট্রাইপোড নাইট মোডের কারণে গভীর অন্ধকারেও ভালো ছবি তুলবে ভিভো ভি২০।

ফানটাচ ওএস১১ ও কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭২০ জি দিয়ে পরিচালিত ভিভো ভি২০ স্মার্টফোনটির র‌্যাম ও রম ৮ ও ১২৮ জিবি। এছাড়াও ফোনটির ডিসপ্লেতে ৬ দশমিক ৪৪ ইঞ্চির-যাতে এজি গ্লাস প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে।

ভিভো বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডিউক বলেন, মিডরেঞ্জের নতুন এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনটিতে আমরা অটোআইফোকাস প্রযুক্তি এনেছি যার মাধ্যমে গ্রাহকেরা মোবাইল ফটোগ্রাফিতে পেশাদার ফটোগ্রাফির সুবিধা পাবে। এছাড়াও ডুয়েল ভিডিও ক্যামেরার সুবিধা থাকায় অনলাইনে ক্লাস করতে অথবা সোশ্যাল মিডিয়া কন্টেন্ট তৈরিতে স্মার্টফোনটি কাজে লাগবে বলে আমরা আশা করছি।


Source: https://www.kalerkantho.com/online/corporatecorner/2020/10/19/967246
2
রিয়েলমি ৭ প্রো স্মার্টফোনে ৬৫ ওয়াটের চার্জার


বিশ্বের দ্রুত বর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি সম্প্রতি বাংলাদেশে তাদের নতুন হ্যান্ডসেট রিয়েলমি ৭ প্রো উন্মোচন করেছে। আকর্ষণীয় মূল্যে রিয়েলমির নতুন স্টাইলিশ ও শক্তিশালী পারফরমেন্সের এ ফোনটি ব্যবহারকারীকে দিবে ফোন ব্যবহারের চমৎকার অভিজ্ঞতা।

স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৬৫ ওয়াট সুপার ডার্ট চার্জ সুবিধা। এ ফিচারের ফলে ফোনটি মাত্র ৩৪ মিনিটে পুরো চার্জ দেয়া যাবে, যা রিয়েলমি ৭ প্রোকে দেশের সেরা চার্জিং ফোনে পরিণত করেছে।

মোবাইল গেমিং, মোবাইল ফটোগ্রাফি কিংবা মোবাইলে অফিসের কাজ করা যেটাই হোক না কেনো, আমাদের মধ্যে অনেকেরই অভিজ্ঞতা হয়েছে ঠিক প্রয়োজনের মুহূর্তে ফোনের চার্জ শেষ হয়ে যাওয়ার। এছাড়াও, প্রায়ই অনেককে দেখা যায় পাওয়ার ব্যাংক কিংবা চার্জার অথবা অতিরিক্ত আরেকটি ফোন ব্যবহার করতে, কারণ যদি তার ফোনে চার্জ শেষ হয়ে যায় এ আশঙ্কায়। সেক্ষেত্রে, রিয়েলমি ৭ প্রো ব্যবহারে চার্জের জন্য হয়তো ব্যবহারকারীর আর অন্য কোনো ডিভাইস ব্যবহারের প্রয়োজন হবে না।

মিরর সিলভার এবং মিরর ব্লু এ দুটি রঙে অবিশ্বাস্য দামে মাত্র ২৭,৯৯০ টাকায় ৪,৫০০ মিলি অ্যাম্পিয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারির সাথে উন্নত ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তির রিয়েলমির নতুন এই স্মার্টফোনটি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। ডিভাইসটি মাত্র ১২ মিনিটে ৫০ শতাংশ চার্জ হবে। গরম হওয়া প্রতিরোধেও বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে ডিভাইসটিতে। গেম খেলার সময়ও চার্জ দেয়া যাবে ডিভাইসটি। গেমিং-এর সময় মাত্র ৩০ মিনিটে এ ফোনটি ৪৩ শতাংশ চার্জ হবে। এছাড়াও, মাত্র তিন মিনিটে ফোনটি চার্জ হবে ১৩ শতাংশ, যা দিয়ে তিন রাউন্ড পাবজি (১.২২ ঘণ্টা) খেলা যাবে, আড়াই ঘন্টা ইউটিউব দেখা যাবে, ২ ঘণ্টা ইনস্টাগ্রাম ব্রাউজ করা যাবে এবং ৪ দিন ফোনটি স্ট্যান্ডবাই মোডে রাখা যাবে। রিয়েলমি ৭ প্রোতে অ্যালগরিদম প্রযুক্তিতে ৯৮ শতাংশ আলট্রা এফিসিয়েন্সি নিশ্চিত করা হয়েছে। টাইপ-সি ইউএসবি কেবলে ১০ভোল্ট ৬.৫ অ্যাম্পিয়ারের চার্জ নেয়ার পাশাপাশি রিয়েলমি ৭ প্রো ১৮ ওয়াট পিডি/কিউসি চার্জও সমর্থন করবে।

ফোনটিতে রয়েছে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ। এ সেটআপে মূল ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ৬৪ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা হাই রেজ্যুলেশনের ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, যার অ্যাপারচার এফ/১.৮। ৩২ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সেলফি ক্যামেয়ার রয়েছে ৮৫ ডিগ্রি ফিল্ড অব ভিউ এবং সেকেন্ডারি ক্যামেরা হিসেবে সাথে আছে ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স। সাথে আছে ২ মেগাপিক্সেলের ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট পোর্ট্রেট ক্যামেরা এবং ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো লেন্স। প্রতিদিনের মুহূর্তগুলোকে ক্যামেরাবন্দী করতে রিয়েলমি ৭ প্রোর ক্যামেরায় রয়েছে স্টারি মোড, সুপার নাইটস্কেপ, প্যানোরামিক ভিউ, টাইমল্যাপ্স, পোর্ট্রেট মোড, এইচডিআর, আল্ট্রা ওয়াইড মোড, আল্ট্রা ম্যাক্রো মোড, এআই সিন রিকগনিশন, এআই বিউটি, ফিল্টার, ক্রোমা বুস্ট, স্লো মোশন এবং বোকেহ ইফেক্ট কন্ট্রোল ফিচার। ভিডিও মোডে রয়েছে স্ট্যাবিলাইজেশন সহ ফোর-কে/৩০এফপিএস ভিডিও রেকর্ডিং সুবিধা। এবং রয়েছে ১০৮০পি/১২০এফপিএস, ৭২০পি/২৪০এফপিএস স্লো-মো রেকর্ডিং ফিচার।

ডিভাইসটির কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি প্রসেসর সাথে ৮ ন্যানোমিটারের অক্টাকোর সিপিইউ, ও অ্যাড্রিনো ৬১৮ জিপিইউর সাথে ২.৩ গিগাহার্টজ গতিতে কাজ করার সুযোগ করে দিবে। এর ফলে, ফোনটির পারফরমেন্স হবে প্রত্যাশার চেয়েও ভালো। বিনোদনে ভিন্ন মাত্রা দিতে ফোনটিতে রয়েছে ৬.৪ ইঞ্চির সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। মুভি দেখা, গেম খেলা ও অনলাইন স্ট্রিমিং উপভোগ করা যাবে ফোনটির ফুল এফএইচডি প্লাস ডিসপ্লেতে।

স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ১২৮ জিবি ইউএফএস ২.১ স্টোরেজ। এর ফলে, এ ডিভাইস ব্যবহারকারীদের স্টোরেজ নিয়ে ভাবতে হবে না। সুপার স্পিড নিশ্চিতে ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৮ জিবি এলপিডিডিআর৪এক্স র‍্যাম। চমৎকার অডিও এক্সপেরিয়েন্সে ফোনটিতে রয়েছে ডলবি অ্যাটমোস ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার। রিয়েলমি ৭ প্রোতে ব্যবহার করা হয়েছে রিয়েলমি ইউআই ভিত্তিক অ্যান্ড্রয়েড ১০।

রিয়েলমি ৭ প্রো ফোনটির ওজন মাত্র ১৮২ গ্রাম। আর এর স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও ৯০.৮ শতাংশ। নন্দনতাত্ত্বিক লাইট এফেক্টের রিয়েলমি ৭ প্রোর ডিজাইন করা হয়েছে প্রকৃতি থেকে মিরর স্পেসের অনুপ্রেরণায়।

ফোন ব্যবহারে যেকোন সময়ই ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। আর এ দুর্ঘটনা থেকে সুরক্ষায় রিয়েলমি ৭ প্রোতে রয়েছে তিন স্তরের ওয়াটার প্রুফিং টেকনোলজি। ডিভাইসটিতে রয়েছে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সুবিধাও। অসাধারণ পারফরমেন্সের জন্য রিয়েলমি ৭ প্রো প্রথম স্মার্টফোন হিসেবে টিইউভি রেইনল্যান্ড স্মার্টফোন রিলায়াবিল্যাটি ভেরিফিকেশন টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানিয়েছে রিয়েলমি।


Source: https://www.kalerkantho.com/online/corporatecorner/2020/10/19/967177
3

নতুন ফিচার আনতে যাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ


কয়েকটি নতুন ফিচার আনতে যাচ্ছে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। এর অন্যতম হলো এনিমেটেড স্টিকার প্যাক। অ্যানড্রয়েড অ্যাপেই শুধু নয়, আইওএস অ্যাপেও পাওয়া যাবে ফিচারটি। ৩.৪ মেগাবাইট আকারের ফিচারটির নাম বেবি শার্ক অ্যান্ড সার্চ।

স্টিকার প্যাক ছাড়াও থাকবে স্টিকার সার্চ নামের আরো এক ফিচার। এটির সাহায্যে পছন্দমতো স্টিকার বেছে নিতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। এরই মধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে কোনো কোনো ব্যবহারকারীর কাছে এই স্টিকার বেছে নেওয়ার অপশন দিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। এ ছাড়া ইন-অ্যাপ সাপোর্ট ফিচারের সাহায্যে ব্যবহারকারীরা হোয়াটসঅ্যাপের অফিশিয়াল সাপোর্ট টিমের সঙ্গে চ্যাটের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারবেন।


সূত্র : ইন্টাননেট
4

মেমোরি চিপের ব্যবসা বিক্রি করে দিচ্ছে ইন্টেল


মার্কিন চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইন্টেল তাদের মেমোরি চিপের ব্যবসা বিক্রি করে দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ার আরেক চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এসকে হাইনিক্সের কাছে। এ জন্য হাইনিক্সকে খরচ করতে হবে ৯০০ কোটি ডলার। এর ফলে এই প্রতিষ্ঠান হতে যাচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ফ্ল্যাশ মেমোরি চিপ নির্মাতা। এই ব্যাবসায়িক চুক্তি সফল হলে ইন্টেলের ন্যান্ড মেমোরি চিপ ব্যবসা এবং এর সংশ্লিষ্ট উৎপাদন ও ডিজাইন পেটেন্টেরও মালিক হবে হাইনিক্স। পাশাপাশি চীনে থাকা ইন্টেলের চিপ তৈরি কারখানাগুলোরও মালিক হবে তারা। চুক্তিটি এমন এক সময় হলো, যখন ইন্টেল স্বীকার করেছে যে তারা পরবর্তী প্রজন্মের চিপ উৎপাদন করতে বেশ ঝামেলা পোহাচ্ছে। জুলাইয়ে প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছিল, ৭ ন্যানোমিটার চিপের উৎপাদন করতে তাদের ২০২২ সাল পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে। অন্যদিকে ইন্টেলের দুই প্রতিদ্বন্ধী তাইওয়ানের সেমিকন্ডাক্টর প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান টিএসএম এবং দক্ষিণ কোরিয়ার স্যামসাং এরই মধ্যে সফলভাবে চিপ উৎপাদন ও বিক্রি করে যাচ্ছে।

সূত্র : সিএনএন
5
Robotics / শস্য যাচাইকারী রোবট
« Last post by sabuj on October 20, 2020, 12:37:17 PM »

শস্য যাচাইকারী রোবট


আপনার ক্ষেতের ধানগুলো কতটুকু বড় হলো? যথাযথভাবে পুষ্টি পাচ্ছে তো? এসব দেখভালের জন্য গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট তৈরি করেছে শস্য যাচাইকারী রোবট। এসব মাঠের ফসলের কোনো ক্ষতি করা ছাড়াই ফসলের উচ্চতা, পাতা ও ফলের আকারের মতো তথ্য সংগ্রহ করতে পারে। প্রজেক্ট মিনারেল নামের প্রকল্পটি আর্জেন্টিনা, কানাডা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও যুক্তরাষ্ট্রের কৃষকদের সঙ্গে কাজ করছে।

সূত্র : বিবিসি
6

চীনের অনলাইন গ্রসারি বাজারও দখল করতে চায় আলিবাবা


চীনের অন্যতম রিটেইল গ্রুপ সান আর্টের আরো ৩৬ শতাংশ শেয়ার কিনে নিল ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠান আলিবাবা; যদিও এর আগেই এ প্রতিষ্ঠানের ৩৬ শতাংশ শেয়ার কেনা ছিল তাদের। ফলে এখন থেকে রিটেইল গ্রুপের মোট ৭২ শতাংশ শেয়ারের মালিক আলিবাবা। এ জন্য তাদের খরচ করতে হয়েছে ৩৬০ কোটি ডলার। সোমবার এটি নিশ্চিত করে সান আর্ট।

চীনের দ্রুত বর্ধমান অনলাইন গ্রসারি শিল্পের প্রথম স্থানটি দখল করার জন্য এই উদ্যোগ নিল আলিবাবা। এ ক্ষেত্রে তাদের মূলত লড়াই করতে হবে চীনের আরেক অনলাইন গ্রসারি বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান জেডির সঙ্গে।



সূত্র : সিএনএন
7
Robotics / রোবট
« Last post by sabuj on October 19, 2020, 04:56:43 PM »

রোবট


ক্যালিফোর্নিয়া সান ডিয়েগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা তৈরি করেছেন এমন একটি রোবট, যা দেখতে স্কুইডের মতো। এটির নিজের শরীরেই রয়েছে চালিকাশক্তি। পানির নিচে অনুসন্ধানজাতীয় গবেষণার জন্য এতে রয়েছে একটি করে সেন্সর ও ক্যামেরা। স্কুইড রোবটটি তৈরিতে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে অ্যাক্রিলিক পলিমার জাতীয় নরম উপকরণ ব্যবহার করা হয়েছে।

 সূত্র : ম্যাশেবল
8

ইন্টারনেট ও কেবল সেবায় স্বস্তি


প্রতিদিন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তিন ঘণ্টা করে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ও কেবল টিভি নেটওয়ার্ক বন্ধের সিদ্ধান্তে দেশজুড়ে সৃষ্ট উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা আপাতত কেটে গেছে। সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের ত্বরিত উদ্যোগে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) ও কেবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব) আন্দোলন কর্মসূচি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সমাধান আসার আগ পর্যন্ত স্থগিত করেছে।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় এক ভার্চুয়াল সভায় সর্বশেষ এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। সভায় বলা হয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনকে চিঠি দিয়ে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার ও কেবল টিভির আর কোনো ঝুলন্ত তার অপসারণ না করার পরামর্শ দিয়েছেন। এ ছাড়া ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস সমস্যা সমাধানের জন্য লন্ডন থেকে আজ রবিবার সকালে দেশে ফিরছেন। নগর ভবনে কনফারেন্স রুমে আজ আইএসপিএবি এবং কোয়াব প্রতিনিধিদের সঙ্গে তাঁর বৈঠক রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এ বিষয়ে আইনমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবকেও সমস্যা জানিয়ে তা প্রধানমন্ত্রীকে অবগত করাতে বলা হয়েছে। আজ বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি জানানো হতে পারে।

আইএসপিএবি ও কোয়াব প্রতিনিধিদের সঙ্গে গতকাল সন্ধ্যার ভার্চুয়াল সভায় উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহেমদ পলক এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আফজাল হোসেন।

মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার আইএসপিএবি ও কোয়াব নেতাদের বলেন, বিষয়টি নিয়ে ডিএসসিসি মেয়রের সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল। সম্ভবত তাঁকে ভুল ধারণা দেওয়া হয়েছিল। তথ্যমন্ত্রী ও এলজিআরডি মন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। এলজিআরডি মন্ত্রী সিটি করপোরেশনকে তার না কাটার পরামর্শ দিয়ে চিঠি দিয়েছেন। মন্ত্রী আইএসপিএবি ও কোয়াব প্রতিনিধিদের কাছে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সিদ্ধান্ত আসার আগ পর্যন্ত আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত রাখার অনুরাধ জানান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাস্তব পরিস্থিতি বিবেচনায় তাত্ক্ষণিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। আমার মনে হয়, দ্রুতই এ বিষয়ে একটি সমাধান পাওয়া যাবে।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী তাঁর নিজ সংসদীয় এলাকা নাটোরের সিংড়া থেকে সভায় যোগ দেন। সভার শুরুতেই আইএসপিএবি ও কোয়াব নেতাদের তিনি বলেন, সমস্যাটি নিয়ে আমি প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের সঙ্গে কথা বলেছি। আগামীকাল (আজ রবিবার) প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হতে পারে। আপনাদের প্রতি অনুরোধ, একটা যৌক্তিক সমাধানে আসার জন্য আপনারা এক সপ্তাহ সময় দিন। এ সময়ে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডারদের যেন কোনো ক্ষতি না হয়, সে বিষয়টি আমরা দেখব। প্রতিমন্ত্রী আরো জানান, বিষয়টি নিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানের সঙ্গেও তাঁর আলোচনা হয়েছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব আফজাল হোসেন আইএসপিএবি ও কোয়াব সদস্যদের ধর্মঘট থেকে সরে আসার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে বিষয়টি সম্পর্কে উদ্বেগ জানানো হয়েছে। আমি বিষয়টি নিয়ে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী ও জনসংযোগ কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেছি। আশা করছি, এর একটা সমাধান হয়ে যাবে।

মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও সচিবের কাছ থেকে এমন আশ্বাস পাওয়ার পর আইএসপিএবি ও কোয়াব নেতারা তাঁদের প্রতীকী কর্মসূচি সাময়িক স্থগিতের ঘোষণা দেন। আইএসপিএবির সভাপতি এম এ হাকিম প্রথমে আজ রবিবার তাঁদের কর্মসূচি স্থগিত রাখার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, আজ ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়রের সঙ্গে বৈঠক শেষে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। পরে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ঘোষণা দেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সিদ্ধান্ত আসা পর্যন্ত তাদের কর্মসূচি স্থগিত করা হলো। কোয়াবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি  এস এম আনোয়ার পারভেজও এ ঘোষণার সঙ্গে একমত প্রকাশ করেন।

প্রসঙ্গত, করোনার প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ডিএসসিসি হঠাৎ করেই ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার ও কেবল টিভি নেটওয়ার্কের ঝুলন্ত তার অপসারণ শুরু করে। আইএসপিএবি ও কেয়াব এর বিরুদ্ধে গত সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে নিজেদের কর্মসূচি ঘোষণা করে। প্রতীকী এই কর্মসূচিতে প্রতিদিন তিন ঘণ্টা করে সারা দেশের বাসাবাড়ি, অফিস, ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ডাটা কানেক্টিভিটি ও কেবল টিভি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

সংগঠন দুটির দাবি, লাস্ট মাইল কেবলের  স্থায়ী সমাধান না করা পর্যন্ত তাদের ঝুলন্ত তার  অপসারণ করা যাবে না। আইএসপিএপি, কোয়াব, বিটিআরসি, এনটিটিএন ও সিটি করপোরেশনের সমন্বয়ে লাস্ট মাইল কেবল স্থাপন করা হয়েছে কি না তা নিশ্চিত করতে একটি কমিটির মাধ্যমে সরেজমিন তদন্ত করতে হবে।

দেশজুড়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা, সন্ধ্যায় অবসান গতকাল সন্ধ্যায় সর্বশেষ ওই প্রতীকী কর্মসূচি সাময়িক স্থগিত হওয়ার আগ পর্যন্ত দেশজুড়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা অব্যাহত ছিল। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট আজ রবিবার থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টা বন্ধ রাখার ওই সিদ্ধান্তে বাংলাদেশ ব্যাংক ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে তাদের উদ্বেগের কথা জানায়।

করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে পড়ালেখা হয়ে পড়েছে অনলাইননির্ভর। শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ব্রডব্যান্ড কানেকশনের ওপরই বেশি নির্ভরশীল। ইন্টারনেট সংযোগ তিন ঘণ্টা বন্ধ রাখার ঘোষণায় তাঁরা অনেকটাই হতাশ হয়ে পড়েছিলেন।

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নেহাল আহমেদ গতকাল বিকেলে কালের কণ্ঠকে বলেন, আমাদের ক্লাসগুলো মূলত সকাল ১০টা থেকেই শুরু হয়। একসঙ্গে ২০টি বিভাগের ক্লাস চলে। আর সকাল ১০টা থেকে ইন্টারনেট বন্ধ থাকলে বড় সমস্যা হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. জাকির হাসান (আইটি মেইনটেন্যান্স) বলেন, গ্রাহকদের ভোগান্তি যাতে না হয়, সে জন্য আমরা বিকল্প উপায়ে যতটা সম্ভব সেবা দিতে ব্যাংকগুলোকে কিছু নির্দেশনা দিয়েছি।

অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) চেয়ারম্যান আলী রেজা ইফতেখার বলেন, বিষয়টি নিয়ে আজ (গতকাল) সন্ধ্যায় আন্ত মন্ত্রণালয় মিটিং হওয়ার কথা রয়েছে। আমরা ওই মিটিংয়ের দিকে তাকিয়ে আছি। কোনো সুরাহা না হলে সবাই ভোগান্তির শিকার হবেন। কারণ বিকল্প উপায়ে কারো পক্ষেই এত দীর্ঘ সময় সেবা দেওয়া সম্ভব নয়।

বাংলাদেশ ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন ৭০ লাখ ব্যবসায়ী আছেন, যাঁরা ইন্টারনেটনির্ভর ব্যবসা করছেন। করোনা পরিস্থিতি ইন্টারনেটনির্ভর ব্যবসা আরো গুরুত্বপূর্ণ করে তুলেছে।

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা জানান, বাংলাদেশের সব ব্যবসা হয় এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করে। গার্মেন্ট থেকে শুরু করে ফ্রি-ল্যান্সিং পর্যন্ত সব কিছু ইন্টারনেটনির্ভর। ফলে ইন্টারনেটসেবা বন্ধ হলে সবই স্থবির হয়ে পড়বে।

ইন্টারনেট বন্ধ থাকলে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড, শেয়ারবাজার, ব্যাংক, এটিএম বুথ, করপোরেট হাউসসহ ব্যবসা-বাণিজ্যের সব খাতেই ব্রডব্যান্ডনির্ভর অফিস ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হবে।


Source: https://www.kalerkantho.com/online/info-tech/2020/10/18/966720
9
১০০ ওয়াটের ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম!


স্মার্টফোনে চার্জ দেওয়ার জন্য জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে তারবিহীন বা ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম। এখন পর্যন্ত ফাস্ট চার্জিং ১২৫ ওয়াট পর্যন্ত দেখা গেলেও ওয়্যারলেস ফাস্ট চার্জিং পিছিয়ে পড়ে আছে। নামকরা সব স্মার্টফোন কম্পানি আগামী বছর ১০০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম বাজারে আনতে চাইছে। জানাচ্ছেন আফরিন তৃষা

একটি চার্জিং ডকের মাধ্যমে ফোনে চার্জ দেওয়ার পদ্ধতিই হলো ওয়্যারলেস চার্জিং। তারবিহীন এই চার্জিং সিস্টেমে কোন ফোন কত দ্রুত চার্জ হয়, এ নিয়ে এক অদৃশ্য প্রতিযোগিতা প্রায় সব নামকরা স্মার্টফোন কম্পানির মাঝেই চলমান। দ্রুত চার্জিং সিস্টেমে দুই বছর ধরে হুয়াওয়ে ও শাওমি অন্যদের তুলনায় বেশ এগিয়ে। এখন পর্যন্ত ফাস্ট চার্জিং ১২৫ ওয়াট পর্যন্ত দেখা গেলেও পিছিয়ে আছে ওয়্যারলেস ফাস্ট চার্জিং। অপো ও হুয়াওয়ে এখন পর্যন্ত ৪০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম বাজারে এনেছে। এদিকে এ বছরই অপো আবার ঘোষণা দিয়েছে ৬৫ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম আনার। শুধু তা-ই নয়, প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে নাকি নামকরা সব স্মার্টফোন কম্পানি আগামী বছর ১০০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম বাজারে ছাড়ার জন্য কাজ করছে।

এই ওয়্যারলেস চার্জারগুলোর যেমন সুবিধা আছে, তেমনি এগুলোর কিছু অসুবিধাও আছে। এগুলোর কার্যক্ষমতা এখনো গতানুগতিক চার্জারের মতো হয়ে ওঠেনি। এর ফলে চার্জিংয়ের গতি অনেকটাই কমে যায়। অন্যান্য চার্জারের তুলনায় এগুলোতে তাপও নিঃসৃত হয়ে থাকে বেশি।

এদিকে ব্যাটারির চার্জিং সাইকলের দিক থেকে দেখতে গেলে অপোর ১২৫ ওয়াট চার্জিং সিস্টেমে ৮০০ চার্জিং সাইকল অতিক্রম হলেই ব্যাটারি ৮০ শতাংশ দুর্বল হয়ে পড়ে আর ৬৫ ওয়াট চার্জিং সিস্টেমে ৮০০ চার্জিং সাইকল অতিক্রম হলেই ব্যাটারি ৯০ শতাংশ দুর্বল হয়ে পড়ে।

তারযুক্ত চার্জিং ব্যবস্থাতেই যদি ব্যাটারির এই দশা হয়ে থাকে তাহলে ১০০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং ব্যবস্থায় ব্যাটারির পারফরম্যান্স কত দিন ধরে রাখা সম্ভব এটিও চিন্তার বিষয়।

যদিও ফোন কম্পানিগুলো এই চ্যালেঞ্জের মোকাবেলা করার জন্য চেষ্টার কোনো কমতি রাখছে না। এর পরও এখন পর্যন্ত সমস্যাবিহীন ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম কোনো কম্পানিই বাজারে আনতে পারেনি।


Source: https://www.kalerkantho.com/online/info-tech/2020/10/18/966740
10
গুনগুন গান গেয়ে সার্চ করা যাবে গুগলে!


গুগলে গান খুঁজতে এখন আর টাইপ করতে হবে না; বরং গুনগুন করে সেই গান গাইলেই চলবে। ঠিকঠাক সুরে গাইতে না পারলেও সমস্যা নেই। সুর কাছাকাছি থাকলেই একটি তালিকা সার্চ অপশনে চলে আসবে ব্যবহারকারীর কাছে। ১০ থেকে ১৫ সেকেন্ডের মধ্যে গুগল সেই ফলাফল দেখাবে।

তালিকায় গানের শিরোনাম, শিল্পীর নাম এবং ইউটিউব অপশন পাওয়া যাবে। এরই মধ্যে হাম টু সার্চ নামের এই ফিচারটি অ্যানড্রয়েড ও আইওএস ডিভাইসে পাওয়া যাচ্ছে। 

সূত্র : দ্য ভার্জ
Pages: [1] 2 3 ... 10